আপনার কম্পিউটার কি উইন্ডোজ ১০ এর জন্য উপযোগি?

সুপ্রিয়, সবাইকে আমার আন্তরিক সালাম এবং শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি সদ্য রিলিজ হওয়া মাইক্রোসফট এর নতুন অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ ১০ এর সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার কম্প্যাটিবিলিটি শীর্ষক আমার আজকের টিউন।

মাইক্রোসফট এর নতুন অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ ১০ টেকনিক্যাল প্রিভিউ রিলিজ হওয়ার পর থেকেই এর প্রতি মানুষের এক অন্য রকম আগ্রহের সৃষ্টি হয়। সেই থেকে প্রযুক্তি পিপাসুরা এর ফাইনাল রিলিজ এর জন্য দিন গোনা শুরু করে। অবশেষে গতকাল ২৯ জুলাই আনুষ্ঠানিক ভাবে উইন্ডোজ ১০ রিলিজ হয়। এবং এর পর থেকেই লাখো কোটি প্রযুক্তি প্রেমিরা উইন্ডোজ ১০ সবার আগে ডাউনলোড করে ব্যবহারের জন্য উঠে পড়ে লেগে যান। প্রত্যন্ত অঞ্চলে যেখানে ইন্টারনেটের বেশি সুবিধা নেই সেখানেও অনেকে রাতভর উইন্ডোজ ১০ ডাউনলোড করেছে। কিন্তু এতো এতো যার জন্য পরিশ্রম সেটা কি আপনার ঘরে থাকার মতো পর্যাপ্ত জায়গা পাবে? গরীবের ঘরে হাতির পা টাইপের কিছু একটা হবে না তো? মানে অনেক কষ্টে উইন্ডোজ ১০ ডাউনলোড করলেন, তারপর দেখা গেলো সেটা আপনার পিসিতে ইনস্টলই করতে পারছেন না কিংবা ইনস্টলের পর দেখা গেলো আপনার অধিকাংশ প্রোগ্রাম এবং হার্ডওয়্যার সেখানে চলছে না তখন কি হবে? আপনার সব পরিশ্রম তখন পণ্ডশ্রম হয়ে যাবে না?তাই আজ উইন্ডোজ ১০ এর সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার কম্প্যাটিবিলিটি শীর্ষক টিউন নিয়ে হাজির হলাম। শেষ পর্যন্ত সাথেই থাকুন….

উইন্ডোজ ১০ এর জন্য মিনিমাম হার্ডওয়্যার রিকোয়ারমেন্ট
একটি কম্পিউটারে উইন্ডোজ ১০ চালনার জন্য হার্ডওয়্যার রিকোরমেন্ট দেখলে আপনার পিলে চমকে যাবে। কারন আপনার যে পিসিতে উইন্ডোজ ৭ ভালো ভাবে না চলার কারনে উইন্ডোজ এক্সপি ব্যবহার করছেন সেই পিসিতেও উইন্ডোজ ১০ সাপোর্ট করবে মনে হবে। কিন্তু বাংলাদেশের মোবাইল ফোন অপারেটর কোম্পানিগুলোর আকর্ষনীয় অফারগুলোর মতোই এখানেও কিছুটা শর্ত প্রযোজ্য। যাহোক মনের শান্তির জন্য চলুন এক নজরে দেখে নেই উইন্ডোজ ১০ চালনার জন্য পিসির মিনিমাম হার্ডওয়্যার রিকোয়ারমেন্ট।

Hardware-Requirement

উইন্ডোজ ১০ এর জন্য পিসির সর্বনিম্ম যোগ্যতা

Processor: 1 Gigahertz (GHz) or Faster
RAM: 1 Gigabyte (GB) (32-bit) or 2 GB (64-bit)
Free Hard Disk Space: 16 GB
Graphics Card: Microsoft DirectX 9 Graphics Device with WDDM Driver

হার্ডওয়্যার রিকোয়ারমেন্ট দেখে আপনি নিশ্চয় খুশিতে টগবগ করছেন। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো এই হার্ডওয়্যার সমৃদ্ধ কম্পিউটারে যদি আপনি উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করেন তাহলে সেটার স্পিড আর দেখতে হবে না। তবে এতোটুকু চিন্তা করারও প্রয়োজন নেই, কম্পিউটারে এই কনফিগারেশন নিয়ে উইন্ডোজ ১০ ইনস্টলেশন প্রক্রিয়া পর্যন্ত যেতে পারবেন কিনা সেটাই এখন বড় প্রশ্ন।

উইন্ডোজ কম্প্যাটিবিলিটি সেন্টার
আপনার কম্পিউটার উইন্ডোজ ১০ চালনার জন্য উপযোগি কিনা এটা নিশ্চিত হওয়ার জন্য মাইক্রোসফট উইন্ডোজ কম্প্যাটিবিলিটি সেন্টার ব্যবহার করা যেতে পারে। নিচের চিত্রে দেখতে পাচ্ছেন এখানে শুধু মাত্র উইন্ডোজ ৮.১ আপগ্রেড এসিস্টেন্ট দেখানো হয়েছে। কিন্তু জেনে রাখা ভালো, যে সব কম্পিউটারে উইন্ডোজ ৮.১ চলে সে সব কম্পিউটারকে উইন্ডোজ ১০ এ আপগ্রেড করা যাবে। আপনি উইন্ডোজ ৮.১ আপগ্রেড এসিস্টেন্ট এর সাহায্যে উইন্ডোজ ১০ এ আপগ্রেড করতে পারবেন। নিচের চিত্রে ক্লিক করলে আপনি উইন্ডোজ কম্প্যাটিবিলিটি চেক এবং আপগ্রেড সেন্টারে চলে যাবেন।

Compatibility-Center

এখানে একটি বিষয় মনে রাখবেন আপনার কম্পিউটার যদি উইন্ডোজ ৮.১ আপগ্রেড এসিস্টেন্ট দিয়ে আপগ্রেড করার পরেও উইন্ডোজ ৮.১ আপডেট হয় তাহলে বুঝতে হবে আপনার কম্পিউটারে উইন্ডোজ ১০ চলবে না। আপগ্রেড প্রসেসিং এর সময় অবশ্যই কম্পিউটারের মাউস, কিবোর্ড এবং যাবতীয় এক্সটার্নাল এক্সেসরিস কম্পিউটারের সাথে যুক্ত রাখবেন। কারন কম্প্যাটিবিলিটি মোডে সব কিছু চেক করে দেখা হয় যাতে নতুন অপারেটিং সিস্টেম স্মুথলি চলতে পারে।

স্পেসিফিক সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার কম্প্যাটিবিলিটি
আপনার কম্পিউটার এর সাথে যদি প্রিন্টার, স্ক্যানার, গেইমিং কিবোর্ড, মডেম, ইউএসবি ড্রাইভ কিংবা বিশেষ শ্রেণীর গুরুত্বপূর্ণ কোন ডিভাইস যুক্ত থাকে তাহলে সেটা উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমে চলবে কিনা সেটা যাচাই করে নেওয়াটা জরুরী। তাছাড়া অনেকেই লেটেস্ট অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করলেও মান্ধাতা আমলের সফটওয়্যার ব্যবহার করে থাকেন। যেমন, অফিস ২০০৩, ফটোশপ ৭ কিংবা আমি ব্যবহার করি কেমিস্ট্রি অফিস 3D (২০০২) এসব সফটওয়্যার উইন্ডোজ ১০ এ চলবে কিনা আমরা নিশ্চিত না। অনেক কম্পিউটারে প্রয়োজনীয় কিছু কিছু সফটওয়্যার না চলার কারনে আমরা নতুন অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করতে পারিনা। তো চলুন স্পেসিফিক হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যারগুলো চেক করার উপায় জেনে নেই।

ms Compatibility

সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার কম্প্যাটিবিলিটি চেকিং

আপনি যদি উপরের চিত্রের নির্দেশনা মতো উইন্ডোজ কম্প্যাটিবিলিটি সেন্টারে এসে থাকেন তাহলে আপনি নিশ্চয় সার্চ বক্স দেখতে পাচ্ছেন? এবার আপনি যে প্রোডাক্টটির কম্প্যাটিবিলিটি চেক করতে চান সেটা সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করুন। যেমন আমি ডেল এর একটি প্রিন্টার এর নাম লিখে সার্চ করেছি। ফলাফল তো দেখতেই পাচ্ছেন। এভাবে আপনি আপনার ব্যবহৃত প্রত্যেকটি প্রোডাক্ট এর কম্প্যাটিবিলিটি চেক করতে পারবেন।

ms 1Search-Result

এই ওয়েব সাইট হতে অন্যরা যেসব প্রোডাক্ট এর কম্প্যাটিবিলিটি চেক করেছে সেগুলোর কিছু অংশও আপনি সাইটের হোম পেইজ থেকে নিচের চিত্রের মতো দেখতে পাবেন।

ms 2.-Product

আপনার কম্পিউটার যদি উইন্ডোজ ১০ এর জন্য কম্প্যাটিবল হয় এবং উপরের প্রত্যেকটি ধাপ অনুযায়ী আপনি যদি সন্তুষ্ট হয়ে থাকেন তাহলে উইন্ডোজ ১০ এ আপনাকে স্বাগতম।

Windows-10

উইন্ডোজ ১০ মাইক্রোসফট এর সর্বশেষ অপারেটিং সিস্টেম। সুতরাং আজ হোক আর কাল হোক আপনাকে উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করতেই হবে। তাই আপনার পিসি যদি উইন্ডোজ ১০ এর জন্য উপযোগি না হয়ে থাকে তাহলে অতি শীঘ্রই পিসি আপগ্রেড করুন। কারন সমস্ত বিশ্ব যদি উইন্ডোজ ১০ এর উন্মাদনায় মেতে থাকে তাহলে আমরা কেন পিছিয়ে থাকবো? প্রযুক্তির সুরে আমাদেরও তো সব সময় মেতে থাকতে হবে, তাই না?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *
You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>